বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস পালন করল বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়

গত ২৫ শে সেপ্টেম্বর, শুক্রবার সারা বিশ্বব্যাপী বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস পালিত হয়।তারই অংশ হিসেবে প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগ বিশ্ব ফর্মাসিস্ট দিবস উদযাপনের আয়োজন করে। বর্তমান করোনা ভাইরাস প্রেক্ষাপটের কারণে এই বছর বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবসের সকল আয়োজন ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম মাইক্রোসফট টিমস এর মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়। অনুষ্ঠান শুরু হয় সকাল ১০ টায় "বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস-২০২০" শিরোনামে " ফার্মা বি" ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ নুজহাত তাসনিম আমিন এর পরিচালনায় এক কুইজ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। সেখানে ফার্মেসি বিভাগের সকল শিক্ষার্থী স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে।

 

এরপর সকাল ১০:৩০ মিনিটে বিভাগীয় কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. মোঃ একরামুল ইসলামের সভপতিত্বে এবং ৯ম ব্যাচের শিক্ষার্থী সানজিদা মনিরার সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল সেমিনারের সূচনা করা হয়। বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে আয়োজিত এই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত  উপ-উপাচার্য প্রফেসর শহীদুর রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টিম ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর প্ল্যান্ট ম্যানেজার জনাব মো: আমিনুর রহমান।বিভাগের অন্যান্য শিক্ষক এবং ছাএ-ছাএীরাও উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারের শুরুতে বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস এর প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্যখাতে একজন ফার্মাসিস্ট এর অবস্থান সম্পর্কিত এক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন বিভাগীয় সহকারী অধ্যাপক মোনালিসা মনোয়ার।

 

ফার্মাসিস্ট দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিভাগের শিক্ষক মনিরুজ্জামান কভিড-১৯ মোকাবিলায় বাংলাদেশের ফার্মাসিস্টদের ভুমিকার উপর আলোকপাত করেন। জনাব আমিনুর রহমান তার বক্তব্য  বলেন দেশের ফার্মাসিউটিক্যালস ইন্ডাস্ট্রি গুলোতে এখন উন্নত মানের ঔষধ তৈরি হচ্ছে। এই বছরের বিশ্ব ফার্মাসিস্ট  দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় "ট্রান্সফর্মিং গ্লোবাল হেল্থ" এর সম্পর্কে আলোচ্য তথ্য তুলে ধরেন।প্রধান অতিথি ভারপ্রাপ্ত উপ-উপাচার্য  প্রফেসর শহিদুর রহমান তার সাবলীল বক্তব্যর মাধ্যমে একজন আদর্শ ফার্মাসিস্ট এর নীতি নৈতিকতা ও জাতির প্রতি তার দায়ী বদ্ধতা ও স্বার্থহীন মানসিকতা সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলেন। তার দার্শনিক উপমার মাধ্যমে তিনি সকল শিক্ষার্থীদের একজন যোগ্য ফার্মাসিস্ট হিসাবে নিজেদের গড়ে তোলার অনুপ্রেরণা প্রদান করেন। বিভাগের কো-অর্ডিনেটর বলেন ‘ডাক্তার রোগ নির্ণয় এবং ঔষুধ প্রেসক্রাইব করেন।কিন্তু এই ঔষধ আবিষ্কারের পেছনে যে ব্যাপক গবেষণা, উন্নয়ন ও উৎপাদনের প্রয়োজন তার সাথে মুলত ফার্মাসিস্ট জড়িত। তিনি দেশের চিকিৎসা সেবায় ডাক্তার ফার্মাসিস্ট ও নার্সের সমন্বয় ঘটানোর তাগিদ দেন।   উল্লেখ্য যে, আন্তর্জাতিক ফার্মাসিউটিক্যাল ফেডারেশনের উদ্যোগে ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত ইস্তাম্বুল সম্মেলনে ২৫ সেপ্টেম্বরকে বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

 

আলোচনা শেষে মাননীয় ভারপ্রাপ্ত উপ-উপাচার্য কুইজ বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করেন। সেই সাথে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত দেশের প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহণে "ফার্মা অলিম্পিয়াড" প্রতিযোগিতায় বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী  মো. মনিরুজ্জামান টপ টেন এর মধ্যে স্থান করে নেওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানানো হয়।

 

মাননীয় সভাপতি সেমিনার আয়োজনে অংশগ্রহণকারী সবাইকে তার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়ে সেমিনার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

© Copyright 2020 Varendra University | Developed by IT Office, Varendra University.