দ্যা ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড পেলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তানভীর

সামাজিক কাজের মাধ্যমে তরুণ সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তন এবং সংসদীয় পদ্ধতি চর্চার মাধ্যমে নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়নে অবদানস্বরূপ দ্যা ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন শিক্ষার্থী সরকার তানভীর আহমেদ তানিম। তিনি রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী। এ বছর বিশ্বে করোনা মহামারীর ফলে ভার্চ্যুয়ালি রোল অব অনার ও নির্বাচিতদের নাম প্রকাশ করা হয়।

২০০৯ সাল থেকে সরকার তানভীর তরুণদের মাঝে গণতান্ত্রিক মনোভাব ও সক্রিয় নাগরিক হিসেবে সামাজিক দায়বদ্ধতার প্রতি উৎসাহিত করতে সমাজসেবায় যুক্ত হন। পরবর্তীতে নেতৃত্ব চর্চার অংশ হিসেবে তার প্রতিষ্ঠিত ইয়ুথ পার্লামেন্টের মাধ্যমে নিজ দেশ ও বিদেশের তরুণ সমাজের সক্রিয় অবদান রাখতে অনুপ্রেরণা যোগান।

জয়পুরহাটের এই কৃতিসন্তানের নেতৃত্বে বাংলাদেশের ৩৫০ জন ও বিশ্বের ২৫টি দেশের অসংখ্য তরুণরা বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পের সাথে জড়িত থেকে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রায় কাজ করছে। ক্লাব স্কাউটিং এর মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে আজ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছেন তিনি।

তরুণ উদীয়মান এই শিক্ষার্থীর উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী, ইয়ুথ লীডারশিপ প্রশিক্ষণ প্রদান, বিশ্ব পরিচ্ছন্নতা দিবসের কার্যক্রম, গুজব ও নারী সুরক্ষা বিষয়ক কর্মশালা, জাতীয় পতাকার নিয়ম ও বিধিমালার প্রচার, ভোক্তা অধিকার আইনের সচেতনতা ক্যাম্পেইনিং, শীতার্তদের মাঝে কাপড় বিতরণসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমুহের তরুণদের জন্য মডেল ইয়ুথ সার্ক সামিট, ডি-৮ ভুক্ত দেশের তরুণদের জন্য ইয়ুথ কনফারেন্স, নারী যুব সংসদ প্রতিষ্ঠা এবং ভারত-বাংলাদেশ যুব অধিবেশনের মাধ্যমে তরুণদের ইতিবাচক মনোভাব ও নেতৃত্ব বিকাশে দেশ ও বিদেশের তরুণদের অনুপ্রাণিত করছেন।

এ বিষয়ে সরকার তানভীর আহমেদ তানিম জানান, 'দীর্ঘদিনের স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রম ও দেশপ্রেম আমাকে দায়বদ্ধ করেছে। ফলে অধ্যয়নের পাশাপাশি সামজিক কর্মকাণ্ডে সক্রিয় থেকে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি সমাজে ইতিবাচক কিছু করতে। বাংলাদেশি তরুণ হয়েও বিদেশের তরুণদের সাথে কাজ করা সত্যি আনন্দের।'

তিনি আরো জানান, করোনার মধ্যে দ্যা ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড অর্জন বাংলাদেশের জন্য কিছু করতে পারা বলে মনে করছি, যা আমাকে ইতিবাচক কাজের প্রতি ভবিষ্যতেও অনুপ্রাণিত করবে।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রিন্সেস ডায়ানার নামে তার দুই ছেলে ডিউক অব ক্যামব্রিজ প্রিন্স উইলিয়াম ও ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি এই পুরস্কারের প্রবর্তন করেন। প্রতিবছর প্রিন্সেস অফ ওয়েলস ডায়ানার স্বরণে তরুণ জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়নের বিশেষ স্বীকৃতি স্বরূপ বিশ্বের উদীয়মান তরুণদের অনুপ্রাণিত করতে দ্যা ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

© Copyright 2021 Varendra University | Developed by IT Office, Varendra University.