Varendra University

আইন ও মানবাধিকার বিভাগ, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, কর্তৃক “Effectiveness of vaccine and registration procedure” শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও মানবাধিকার বিভাগে গত ২৩ আগস্ট, ২০২১, বিকেল ৪ টায় “Effectiveness of vaccine and registration procedure” বিষয়ক ভার্চুয়াল সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় এর মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ডক্টর আশিক মোসাদ্দিক স্যার এবং অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় কো-অর্ডিনেটর, প্রফেসর আবু নাসের মোহাম্মদ ওয়াহীদ স্যার, আইন ও মানবাধিকার বিভাগ, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়াও আমাদের সাথে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় এর আইন ও মানবাধিকার বিভাগের সকল শিক্ষকমণ্ডলী ও ছাত্রছাত্রীবৃন্দ।
এই করোনা মহামারীতে আমাদের সকলের জীবন যাত্রাই যেন থমকে গেছে। থমকে গেছে আমাদের স্বাভাবিক চলাফেরা। তবে আশার বিষয় এটাই যে আমাদের দেশে করোনার ভ্যাক্সিনেশন প্রকৃয়া শুরু হয়েছে এবং বর্তমানে ১৮ বছর বা তার উপরে এবং বিশ্ববিদ্যালয় এর শিক্ষার্থীদের ও ভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে  বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। অনেকে শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশন প্রসেসটা বুঝতে পারছেনা বা অনেকে ভ্যাক্সিন এর গুরুত্বটা বুঝতে পারছেনা। আবার অনেক সময়  প্রথম ডোজ নিয়েই বেপরোয়া ভাবে চলাফেরা করছি, স্বাস্থ্যবিধি মানছিনা। এসব  বিষয়গুলো নিয়ে একটি পরিষ্কার স্বচ্ছ ধারনা পেতেই আজকের এই ওয়েবিনার।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রধান অতিথি  মাননীয় উপ-উপাচার্য, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, প্রফেসর ডক্টর আশিক মোসাদ্দিক স্যার বলেন,  বর্তমানে ভ্যাক্সিন পাওয়া গেলেও অনেকের মাঝে ভ্যাক্সিন নেবার ক্ষেত্রে উদাসীনতা দেখা যাচ্ছে। আবার অনেক সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে বিভিন্ন ভুল তথ্যের জন্য অনেকে ভাবছেন যে, ভ্যাক্সিন নিলে আরো ক্ষতি হবে কিনা। এই বিষয় নিয়ে মাননীয় উপ-উপাচার্য স্বচ্ছ বৈজ্ঞানিক ধারনা দিয়েছেন ও সকলকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করেছেন। তিনি আরো বলেন, আমাদের সবাইকে শরীরের ইমিউনিটি সিস্টেম বাড়াতে হবে, সেজন্য রোদের আলো গায়ে লাগানো, কায়িক পরিশ্রম করা, আয়রন ও প্রোটিন জাতীয় খাবার খাওয়া, জিঙ্ক, ভিটামিন ‘ই’ ‘বি’ ইত্যাদি খওয়ার বিকল্প নেই।
এরপর  বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আইন ও মানবাধিকার বিভাগের সম্মানিত শিক্ষক মাসরুর আবদুল্লাহ আবিদ  এই ভ্যাক্সিন দেওয়ার ক্ষেত্রে সুরক্ষা অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন প্রসেসটা  স্লাইড শেয়ার ও ভিডিও প্রেজেন্টেশন এর মাধ্যমে সহজ ও সুন্দর ভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন।
  অনুষ্ঠানের প্রায় শেষ পর্যায়ে  সমাপনি বক্তব্য দেন আইন ও মানবাধিকার  বিভাগ বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় এর মাননীয় কো-অর্ডিনেটর এবং  অনুষ্ঠানের সভাপতি প্রফেসর আবু নাসের মোহাম্মদ ওয়াহীদ। তার বক্তব্যতে তিনি বলেন, আশা করা যায় সবাই  করোনা ভ্যাক্সিন এর প্রয়োজনীয়তা এবং কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে, কিভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এই বিষয়টা বুঝতে পেরেছেন।  যত দ্রুত শিক্ষার্থীদের ভ্যাক্সিন নেওয়া হবে তত  শীঘ্রই  ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে  ফিরতে পারবে শিক্ষার্থীরা, আবার আগের মত সবার সাথে সামনা সামনি দেখা হবে। সকলের সুস্বাস্থ্য এবং শান্তি কামনা করে  এই ওয়েবিনার এর সমাপ্তি ঘোষণা করেন সভাপতি।