বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে ‘ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি’ বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় গত ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, বিকাল ৩ টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে “Diabetic Retinopathy” বিষয়ে একটি সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারের মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের এমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক এবং গবেষক ও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. রাশিদুল হক। বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. ওসমান গনি তালুকদারের সভাপতিত্বে এবং রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীন এর সঞ্চালনায় উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপাচার্য প্রফেসর ড. এম আব্দুস সোবহান এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. তারিক সাইফুল ইসলাম, ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মো. শহীদুর রহমান, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বিভাগের প্রধান ড. মতিউর রহমান সহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।


সেমিনারে প্রধান বক্তা জনাব প্রফেসর ড. রাশিদুল হক বলেন, ডায়াবেটিস একটি নিয়ন্ত্রণযোগ্য ব্যাধি যা খাদ্যাভাস, খাদ্যের ভারসাম্যতা, পরিমিত শর্করা খাবার গ্রহণ, শরীরচর্চা এবং ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত রোগীদের নিয়মিত ওষুধ সেবন অত্যাবশ্যক এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়ক। দীর্ঘ সময় ধরে অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস মানবদেহের রক্তে অতিরিক্ত সুগার সঞ্চিত করে এবং যার কারণে চোখের সংবেদনশীল রেটিনা টিস্যুতে অতিরিক্ত অপ্রয়োজনীয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রক্তনালী সৃষ্টি করে (Angiogenesis) যার থেকে অবশেষে চোখের ভেতরে রক্তক্ষরণের সৃষ্টি হয় যা দৃষ্টি প্রতিবন্ধকতা ঘটায় এবং পরিশেষে চিরতরে অন্ধত্বের দিকে ধাবিত হয়। তিনি তার গবেষণায় দেখিয়েছেন যে, মানবদেহের কোষ থেকেই সৃষ্ট এক ধরণের ক্ষুদ্র মলিকিউল (যার নাম MicroRNA) একটি প্রতিরোধক হিসেবে ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি নিরাময়ের ক্ষেত্রে এক ধরণের সম্ভাবনা ।

© Copyright 2021 Varendra University | Developed by IT Office, Varendra University.